সিংগাইরে ১দিনে ৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-২ : আহত-৬

 

কোহিনূর ইসলাম রাব্বি ঃঃ
মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ১ দিনে ৩ টি সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ ঝড়েছে ২ জনের।আহত হয়েছে কমপক্ষে ৬ জন। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিংগাইর-মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক মরণ ফাঁদ সড়কে গতকাল রোববার (২৭ মে) সন্ধ্য সাড়ে ৬ টার দিকে বাস্তায় মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় ১ যুবক গুরুতর আহত হয়। বিকাল ৩টার দিকে সিংগাইর মানিকগঞ্জ সড়কের আজিমপুর ব্রীজের নিকটে প্রাইভেটকার ও তেলের কন্টেইনারের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাইভেটকারের তিন আরোহী ও কন্টেইনার চালক গুরুতর আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত ফরিদপুরের মধুখালি উপজেলার ধোনায়াথী এলাকার পরশ উল্যাহ মৃর্ধার পুত্র ইসমাইল (৫৮) কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে তাকে অন্যত্র রেফার্ড করা হয়। কিন্তু তাকে এম্বুলেন্সে অন্যত্র চিকিৎসার জন্য নেয়ার আদেশ দেয়া হলেও হাসপাতালের এম্বুলেন্সেই তাকে রেখে দেয়া হয়। ছটফট করতে করতে তার মৃত্যু হয়।

এ খবরে তোলপাড় শুরু হলে ঐ হাসপাতালে বিভিন্ন সংবাদ কর্মী ও গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা ভীড় করে।এ ব্যাপারে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে কোন সদুত্তর মেলেনি। কর্তব্যরত ডাক্তার অমিত কুমার তরফদার বলেন, আমি রেফার্ড করে দিয়েছি, এম্বুলেন্স চালক কি করেছে, তা আমার জানা নেই। অন্যান্য আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

একই দিনে ভোরে সিংগাইর-মানিকগঞ্জ সড়কের খোলাপাড়া এলাকায় প্রাইভেটকার ও ভ্যান মুখোমুখি সংঘর্ষে ভ্যান চালক সেন্টু (৩০) ও ইছাক (৩২) গুরুত্বর আহত হয়। আহত সেন্টুকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। নিহতের বাড়ি জেলা সদর উপজেলার হাটিপাড়া এলাকায়। তার পিতার নাম মৃত মোকসেদ। কিন্তু নিহত হওয়ার নিশ্চিত করণের বিষয়টি অস্বীকার করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে ঐ হাসপাতালের টিএইচও ডা: শিরিন ফারহানার সাথে কথা বললে তিনি জানান, খাতা-কলমে কোথাও নাম নেই,তাহলে আমরা তো বলতে পারি না, নিহতের বিষয়টি আমরা নিশ্চিত করেছি? ওসি সফিকুল ইসলাম মোল্লা জানান, তেলবাহী কন্টেইনার ও প্রাইভেট কার আটক করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। নিহতের নিশ্চিতকরণের ব্যাপারটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যদি এখন অস্বীকার করে, তাহলে আমাদের কি করার আছে বলেন? ছবি-সংগৃহীত

শিরোনাম