শিক্ষা অনুরাগী জেলা প্রশাসক আব্দুল লতিফের দৃষ্টান্ত !

আব্দুল আল রাকিব,মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ঃঃ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বাংলা বিভাগে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েও আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে ভর্তি হওয়া নিয়ে শঙ্কায় ছিলেন সেতু আক্তার। তবে জেলা প্রশাসক (ডিসি) মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ তার সেই শঙ্কা দূর করলেন।সেতু আক্তার জেলার হরিরামপুর উপজেলার বয়রা ইউনিয়নের দাশকান্দি গ্রামের আইয়ুব আলী বিশ্বাসের মেয়ে।

রোববার (১৯ ডিসেম্বর) জেলা প্রশাসক ফোন কলে বিষয়টি জানতে পারে সেতু আক্তারকে নিজ কার্যালয়ে ডেকে আনেন। এসময় তিনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যাচাই করে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আর্থিক সহায়তার পাশাপাশি ঢাকায় যাতায়াত ভাড়া প্রদান করেন। এছাড়া ভবিষ্যতে টিউশনিসহ অন্যান্য সহায়তার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেন জেলা প্রশাসক।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শুক্লা সরকার উপস্থিত ছিলেন। পরে বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষার্থীদের প্রশংসনীয় মন্তব্য লক্ষ্য করা যায়। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মানিকগঞ্জ মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ জানান, জেলা প্রশাসন মানিকগঞ্জ সর্বদা মেধাবী শিক্ষার্থীদের পাশে থাকবে।

প্রসঙ্গত, সেতু আক্তার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ভর্তি পরিক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে মেধাক্রমে ৮৬০ তম হন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে ভর্তির জন্য মনোনীত হন। তবে পরিবারের আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারছিলেন না।