দৌলতপুরে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় ডাকাতির ঘটনায় ৭ ডাকাত গ্রেফতার

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ঃঃ
মানিকগঞ্জে দৌলতপুরে চক মিরপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: নুরুজ্জামান(৬৫) এর বসত বাড়ীতে গত ৮ জানুয়ারী রাত অনুমান ০২.৩০ ঘটিকায় অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জন ডাকাত ঘরের বারান্দার গ্রিল কাটিয়া বসত ঘরের ভিতরে প্রবেশ করিয়া বসত ঘরে থাকা স্টিল এর ৪ টি আলমারী ভাঙ্গিয়া আলমারীর ড্রয়ারের থাকা ২.৫ ভরি ওজনের স্বর্ণের হার, ৮ আনা ওজনের স্বর্ণের মঙ্গল সূত্র, ২ টি স্বর্ণের আংটি, ১২ আনা ওজনের ১ টি এবং ৮ আনা ওজনের ১ টি স্বর্ণের চেইন ১ টি বিদেশী টর্চ লাইটসহ ৪,৩৩,০০০/টাকার মালামাল লুন্ঠন করে নিয়ে যায়। উক্ত ঘটনার বিষয়ে দৌলতপুর থানায় অভিযোগ আসলে এ ব্যাপারে একটি মামলা হয়।

জানা যায়, মামলা রুজু হওয়ার পর মামলার আইও এসআই সাইফুল ইসলাম, অফিসার ইনচার্জ মো: জাকারিয়া হোসেন, সার্কেল অফিসার তানিয়া সুলতানা এবং পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান পিপিএম-বারদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মাত্র ১০ দিনের মধ্যেই ডাকাত দলকে পাকড়াও করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতারকৃত ডাকাতরা হলো ১। রুস্তম (৫০), পিতা- মৃত কদ্দুস, মাতা- সুক্কুরি বেগম, সাং- মীরহাটাইল, থানা-দৌলতপুর, জেলা-মানিকগঞ্জ ২ । মো: বাবুল হোসেন (৩৬), পিতা- মো: বহুত আলী বেপারী, মাতা- সবুরা খাতুন, সাং- রতনদিয়া, থানা-শাহজাতপুর, জেলা- সিরাজগঞ্জ। ৩। মোস্তফা কামাল ( ৩৭), পিতা- মো: শফিকুল ইসলাম, মাতা- আনোয়ারা বেগম, সাং- চর পাঁচুরিয়া (চর পাঁচুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দক্ষিন পাশে জনৈক ইমারত মাষ্টার এর বাড়ীর দক্ষিনে), থানা- চৌহালী, জেলা- সিরাজগঞ্জ ৪। এলাহী @ ইমন(৪০), পিতা- মৃত আমজাদ @ আঞ্জু শেখ, সাং- ওয়াইল /কান্দা ওয়াইল, থানা-দৌলতপুর, জেলা-মানিকগঞ্জ ৫। মো: আরিফ শেখ (২৬), পিতা- মো: নুরু শেখ , মাতা- মজিদা খাতুন, সাং- চরকাটারী, থানা-দৌলতপুর, জেলা- মানিকগঞ্জ ৬। ছানোয়ার হোসেন ছানু (২৬), পিতা-ইউসুফ আলী শেখ , মাতা- সোহাগী বেগম, সাং- জাফরগঞ্জ ধুসর ষ্ট্যান্ডের বাম পাশে, থানা- শিবালয়, জেলা- মানিকগঞ্জ ৭। মো: রুবেল (২৬), পিতা- মো: আব্দুল শেখ, মাতা- কমলা খাতুন , সাং- চরকাটারী, থান-দৌলতপুর, জেলা- মানিকগঞ্জ-দের গ্রেফতার করেন। পরবর্তীতে আসামীদের দেখানো মতে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেট কার যাহার রেজি নং- ঢাকা মেট্রো খ-১১-৫৩১৩ এবং মামলায় লুন্ঠিত টাকার মধ্যে হইতে নগদ ২১,০০০ টাকা ২ টি চেইন ও একজোড়া কানের দুল যাহার সর্বমোট ওজন ২ ভরি, যাহার মূল্য অনু: ১,২০,০০০ টাকা এবং বিভিন্ন কোম্পানীর ৮ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

অদ্য আসামীদের ফৌজদারী কাঃ বিঃ-র ১৬৪ ধারা মতে জবানবন্দী গ্রহণের জন্য বিজ্ঞ আদলতে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলার সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার এবং লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।